ভালোবাসার গল্প

৪ বছর পর তুমি আমার সামনে – Breakup Love Story Bangla

একদিন তুমি আমাকে বলেছিলে, বিয়েটা করা সম্ভব না। আম্মু কালো মেয়ে পছন্দ করে না। আমি আম্মুকে কষ্ট দিয়ে বিয়ে করতে পারবোনা। জোর করে কি আর কিছু হয় বলো। এর চাইতে ভাল আমরা ব্যাপারটা এখানেই শেষ করে দেই। মাফ করে দিও।

এতোটুকু বলেই, নির্জন রাস্তায় আমাকে একা রেখে হনহন করে চলে গিয়েছিলে তুমি। এতোটুকুই চিন্তা করো নি। আমি তোমার কাছ থেকে পাওয়া, এতটা আঘাত সইতে না করতে পেরে সুসাইড করতে পারি। কিংবা এই নির্জন রাস্তায় যেখানে একটু আগে, তোমাকে ভরসা করে তোমার কাছে এসেছিলাম।

সেখানে কোন মেয়ে একা থাকা অবস্থায় যেকোনো সময় তার সাথে যে কোনো অঘটন ঘটতে পারে। আমি হতবাক, আমি হতবাক হয়ে দাঁড়িয়ে ছিলাম। আমার গায়ের রং কালো বলে কি আমি অযোগ্য। আমার যোগ্যতা বা গুন কি আমার গায়ের রঙের কারণে ঢাকা পড়ে গেল।

আমি ঠায় দাঁড়িয়ে রইলাম। নিজেকে সং ছাড়া কিছুই ভাবতে পারছিলাম না। আমি বাসায় ফেরার পথে খুব কেঁদেছিলাম। আমাকে সান্তনা দেবার কেউ ছিলনা। কারণ, কেউ কখনো তোমার আমার সম্পর্কটা কেউ মেনে নিচ্ছিল না।

এমনকি আমার বন্ধুরাও। ওরা বলছিল, তুমি আমার সাথে এমনিতেই ঘোরাঘুরির করেছ। ভালোবেসে নয়, সময় কাটানোর জন্য। এসব বলার কারণ ও অবশ্যই ছিল। আমি শুধুমাত্র তোমাকে বিশ্বাস করে বোকার মতো ভালোবেসে গিয়েছিলাম। 

আজকে যখন কালো হওয়ার অপরাধে বিয়ের অযোগ্য হিসেবে আমাকে ছেড়ে গেলে, তখন সবার বলা কথাগুলো কানে  মাদুলের মতো বাজছিলো। আমি কালো বলে পরিবারের সবার কাছ থেকে সবচাইতে বেশী ভালোবাসা পেয়েছি। আর তুমি কিনা আমি কালো বলে বউ হিসেবে, জীবনসঙ্গী হিসেবে, অযোগ্য বলে  এই অজুহাত দিয়ে আমাকে বিয়ে করলে  না।

সুন্দর-অসুন্দর কি আমার হাতে সৌন্দর্য। এত  বেশি জরুরি যে পাঁচ বছর সম্পর্ক রাখা বা ভালোবাসার পরেও শুনতে হলো। কালো বলে বিয়ে করা সম্ভব নয়। আজ চার বছর পর তোমার সাথে আমার কোর্টে দেখা হলো। আমার সামনে তুমি মাথা নিচু করে বসে আছো।  

তোমার পরীর মত সুন্দরী স্ত্রী। আমি উকিল হিসেবে তোমার দিকে তাকিয়ে আছি। তোমার পরীর মত সুন্দরী স্ত্রী, তোমার কাছে ডিভোর্স চাইছে। তোমাকে ছাড়তে চাইছে। তুমি তাকে ছাড়তে চাইছে না। সে থাকতে চায় না তোমার সাথে। যদিও তুমি বেছে বেছে সবচেয়ে যোগ্য পাত্রী কে  বিয়ে করেছ। 

তুমিও আজ একটা মেয়ের  জীবন সঙ্গী হিসেবে অযোগ্য বলে, সে তোমাকে ছাড়তে চাইছে। আমি কোটের কাগজ গোছাতে গোছাতে বললাম। ডিভোর্স টা দিয়ে দিন। জোর করে কি কিছু হয় বলেন। এই প্রথম তুমি অসহায় ভাবে আমার দিকে তাকালে। ভাগ্যিস সেদিন প্রত্যাখ্যান করেছিলে,  তাই আজ আমার দাঁড়ানোর জায়গা টা বদলে গিয়েছে।

চার বছর আগে মাঝরাস্তায় আমি অসহায় ভাবে তোমার সামনে দাঁড়িয়ে ছিলাম। আর আজ চার বছর পর তুমি অসহায় ভাবে আমার সামনে কাঠগড়ায় দাঁড়িয়ে আছো। 

 

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button